২ সপ্তাহে পাকা চুল হবে কালো একটি মিশ্রণে!জেনে নিন ব্যাবহার প্রণালী

বয়স বাড়লে বা বার্ধক্য এলেই চুল পেকে যায়। কিন্তু এখন অল্প বয়সে অনেকের চুলে পাক ধরে। এটা সত্যিই বিব্রতকর। সাধারণত সঠিক পুষ্টির অভাবে এমনটা

হয়ে থাকে।তবে চুলের রঙ নির্ভর করে জিনগত বৈশিষ্ট্য এবং বিশেষ হরমোন মেলানিনের ওপর। এই মেলানিনের অভাবের কারণেই চুল পাকে। বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে শরীরের মেলানিন তৈরির ক্ষমতা কমে আসে বলেই বুড়ো বয়সে চুল পাকে।

কিন্তু কম বয়সে চুল পেকে যাওয়ার একটা অন্যতম কারণ হতে পারে আমাদের শরীরে জিন বা বংশগতির প্রভাব।

এছাড়া খাবারদাবারের ভেজাল ও পরিবেশগত দূষণসহ অতিরিক্ত মানসিক চাপ, ধূমপান বা জীবনযাপনের নানা সমস্যার কারণেও কম বয়সে চুল পাকতে পারে।

চিকিৎসকের মতে, সঠিক পুষ্টির অভাবে অনেক সময় অল্প বয়সেই চুল পেকে যায়। মিনারেল, ভিটামিন-এ, বি, কপার, মিনারেল, আয়রনের অভাবে চুল পেকে যায়।

এছাড়া অপর্যাপ্ত ঘুম, জীবন-যাপনের অনিয়ম, অযত্ন, খাদ্যাভাসের পরিবর্তন ও দুশ্চিন্তার কারণেও অনেকের চুল তাড়াতাড়ি পাকে।

এখন প্রশ্ন হলো, অল্প বয়সে আপনার চুল পেকেছে? আপনি চিকিৎসকের কাছেও গেছেন প্রতিকার চাইতে, কিন্তু দ্রুত সমাধান পাচ্ছেন না।

তবে এ নিয়ে চিন্তার কিছু নেই আপনি চাইলে ঘরে বসেই একটি ম্যাজিক মিশ্রণের সাহায্যে মাত্র দুই সপ্তাহে এ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

এ মিশ্রণ নিয়মিত ব্যবহারে পাকা চুল কালো করে দেবে। এর আরাও একটি গুণ হলো এটা আপনার দৃষ্টিশক্তিও প্রখর করবে। তাহলে দেরি না করে আসুন জেনে নিই, কী সেই মিশ্রণ যা আপনার সাদা চুল কালো করবে সহজেই!

ম্যাজিক মিশ্রণের উপকরণ

১শ’ গ্রাম তিসির তেল, ২টি মাঝারি মাপের পাতিলেবু, ২ কোয়া ছোট রসুন, ৫শ’ গ্রাম মধু।

প্রস্তুত প্রণালী

প্রথমে পাতিলেবু দুটি খোসা ছাড়িয়ে ছোট ছোট টুকরো করে কেটে নিন। এবার রসুন এবং পাতিলেবু মিক্সিতে পেস্ট করে নিন।

ভালো মতো পেস্ট হয়ে গেলে এতে তিসির তেল এবং মধু দিয়ে ফের একবার ভালো করে মিক্স করুন। এবার মিশ্রণটি একটি পরিষ্কার এয়ার টাইট কাচের বোতলে ভরে ফ্রিজে রেখে দিন। এর একদিন পর বের করে ব্যবহার করুন।

ব্যবহার বিধি

প্রতিদিন তিন বার এক চামচ করে খেতে হবে। সকালে, দুপুরে ও রাতে খাওয়ার আধ ঘণ্টা আগে ২ সপ্তাহ এ মিশ্রণটি খেলে আপনি নিজেই চুলের পরিবর্তন দেখতে পাবেন।

সাবধানতা : এ মিশ্রণটি শুধু মাত্র কাঠে চামুচ দিয়িই তুলতে হবে। অন্য চামুচ ব্যবহার করা যাবে না।

[X]